সিপিএলে সাকিবের দুর্দান্ত বোলিং ফাইনালের পথে বার্বাডোজ

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগে (সিপিএল) বল হাতে চমক দেখিয়েই চলেছেন টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। আজ আবারও বল হাতে তিনি ছিলেন দুর্দান্ত। এবারের সিপিএলে নিজের সেরা ৪ ওভারে মাত্র ২৫ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন সাকিব। তার দুর্দান্ত বোলিংয়েই তার দল বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টস ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সকে হারিয়েছে ৭ উইকেটে। তবে ব্যাট হাতে আজ সাকিব ছিলেন ব্যর্থ ১৪ বলে করেছেন মাত্র ১৩ রান।

আজও বল হাতে ওপেন করতে আসা সাকিব নিজের প্রথম ওভারেই ফিরিয়ে দেন ভয়ঙ্কর জিমি নিশামকে। ঐ ওভারে মাত্র ৪ রান দেন সাকিব।

প্রথম ওভারের সফলতার পর ব্যক্তিগত দ্বিতীয় ওভারেও ছন্দের সাথে বল করেন তিনি। এ ওভারে তাকে নিয়ে বাড়তি ঝুঁকিতে যেতে চায়নি ত্রিনবাগোর ব্যাটসম্যানরা। সচেতনতার সাথে সাকিবকে মোকাবেলা করে তারা। এই ওভারেও মাত্র ৪ রান (১, ০, ১, ১, ০, ১) দেন সাকিব।

এরপর আক্রমণ থেকে সরিয়ে নেওয়া হয় বাঁহাতি এ অলরাউন্ডারকে। ইনিংসের ১৫তম ওভারে তাকে আবারও আনা হয় আক্রমণে। এবারও অধিনায়কের মুখে হাসি ফোটান সাকিব। দলকে উপহার দেন ৪ চার ও ৪ ছক্কায় ৬০ রান করা ফিল সিমন্সের উইকেট।

প্রথম তিন বলে মাত্র ১ রান (ওয়াইড) দেওয়া সাকিবকে চতুর্থ বলে ছক্কা হাঁকান সিমন্স। এতেই যেন বাধে বিপত্তি। এক বল পরেই সিমন্সের স্টাম্পড উপড়ে শেষ হাসিতে মাতেন সাকিব। পাঁচ ডটের বিপরীতে এক ছক্কায় ওভারে ৭ রান (০, ০, ওয়াইড, ০, ৬, উইকেট, ০) দেন তিনি।

ইনিংসের ১৭তম ওভারে ব্যক্তিগত কোটার শেষ ওভার করেন তিনি। কাইরন পোলার্ড ও দীনেশ রামদিনের বিপরীতে ১০ রান (১, ১, ১, ১, ৬, ০) খরচ করেন তিনি।

ফলে শেষ পর্যন্ত নিজের ৪ ওভারে ২৫ রানের বিনিময়ে মূল্যবান দুটি উইকেট তুলে নেন সাকিব।

আগেই প্লে-অফ নিশ্চিত করেছে সাকিবের বার্বাডোজ। এটি ছিল তাদের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ যা তারা জয় দিয়ে শেষ করলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *