সাকিবকে শাস্তি না দিয়ে অনুপ্রাণিত করা উচিত ছিল : সাকলায়েন

আইসিসির কাছে তথ্য গোপনের দায়ে ক্রিকেট থেকে দুই বছর নিষিদ্ধ হয়েছেন বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এই জাদুকরী অল-রাউন্ডারের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে তোলপাড় চলছে ক্রিকেট বিশ্বে। কেউ শাস্তির পক্ষে আবার কেউ বিপক্ষে মত দিচ্ছেন। পাকিস্তানের কিংবদন্তি স্পিনার সাকলায়েন মুশতাক এই শাস্তির ঘোর বিরোধী। বরং ফিক্সিং প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ায় সাকিবের পিঠ চাপড়ে দেওয়ার পক্ষে তিনি।

সাকিব প্রসঙ্গে সাকলায়েন মুশতাক বলেছেন, ‘এমন ঘটনা প্রথমবারের হয়েছে। সাকিব ম্যাচ পাতানোর সঙ্গে যুক্ত নয়। তাকে এভাবে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া আইসিসির অনুচিত হয়েছে। ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ায় তাকে অনুপ্রাণিত করতে পারত আইসিসি। সাকিবের নিষেধাজ্ঞা বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য একটি বড় ধাক্কা। সমানভাবে সাকিবের ক্যারিয়ারেরও ব্যাপক ক্ষতি হবে। সাকিবকে লঘু দণ্ড দিয়ে নতুন নিয়ম প্রণয়ন করতে পারত আইসিসি।’

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে বাংলাদেশের স্পিন কোচ হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন সাকলায়েন মুশতাক। পাঞ্জাবে জন্ম নেওয়া এই কিংবদন্তি অফ স্পিনারের অভিষেক হয়েছিল ১৯৯৫ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। ১৯৯ বিশ্বকাপে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছিলেন। টেস্ট ক্রিকেটে ২০০ উইকেটের মালিক সাকলায়েনের ওডিআই পরিসংখ্যান ২১.৭৮ গড়ে ২৮৮ উইকেট। প্রথম শ্রেণিতে ৫০০ উইকেট নেওয়ার অসাধারণ কীর্তি আছে তার। ভারতের বিপক্ষে ২০০৪ সালে টেস্ট ম্যাচ খেলে ক্যারিয়ারে ইতি টানেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *