নাঈম-অহনার ‘হাসির পাত্র’

কিশোরী বয়সে ইমরান নামে একজনের প্রেমে পড়েছিলেন হাসি। যৌবনে এসে বিয়ের ক্ষেত্রে সব ছেলের মধ্যেই সে পুরনো প্রেমিক ইমরানকে খুঁজতে থাকে। কিন্তু কারও মধ্যেই ইমরানকে না পেয়ে হতাশ হয়ে পাত্র রিজেক্ট করে দেয়। শেষমেশ লাকি সেভেন পাত্র হিসেবে হাসির সঙ্গে দেখা করতে আসে ফাহমি।

একটা অ্যাডফার্মে কপি রাইটার হিসেবে কাজ করা ফাহমি স্বভাবে বোকা টাইপের। তার জীবনের ব্রত ঘুমানো এবং ঘুমানো। এমন অবস্থায় প্রেম করা বা বিয়ে দুটোই তার জন্য অনেক ঝক্কি-ঝামেলার। সে পাত্রী দেখতে এসেছে কেবল বাড়ির চাপে পড়ে। জানে কোনো মেয়েই তার পছন্দ হবে না।

কিন্তু হাসিকে দেখতে গিয়ে ঘটে উল্টো। তার প্রেমে পড়ে যায় ফাহমি। কিন্তু বরাবরের মতো হাসির পাত্র পছন্দ হয় না। এটা জানার পর ভেঙে পড়ে ফাহমি। তবে তিনদিন পর শুরু হয় তার নতুন জীবন। স্বভাবসুলভ অলসতা ছেড়ে ব্যস্ত জীবন শুরু করে সে। কিন্তু তাতেও কাজ হয় না। অবশেষে সে সিদ্ধান্ত নেয় তিব্বত চলে যাবে। সেখানে গিয়ে ধ্যানে বসবে।

এদিকে ফাহমির এই অবস্থার খোঁজ খবর নিয়মিত পেতে থাকে হাসি। ওদিকে তিব্বতে গিয়ে সত্যি সত্যি ধ্যানে বসে ফাহমি। তার ধ্যানে বসার ঘটনা টিভি চ্যানেলে লাইভ প্রচার শুরু হয়। আর এসব কাণ্ড কারখানা দেখে ছুটে আসে হাসি। ফাহমির ধ্যানভঙ্গ করে জানায়, পাত্র হিসেবে তাকে তার পছন্দ। কারণ সে নিজে কারও কাছে হাসির পাত্রী হতে চায় না।

এমন মজার এক গল্প নিয়েই নির্মিত হয়েছে ঈদের নাটক ‘হাসির পাত্র’। কলিন রড্রিকের রচিত গল্পে নাটকটি পরিচালনা করেছেন ফিরোজ কবির ডলার। এখানে হাসি চরিত্রে অহনা এবং ফাহমি চরিত্রে এফএস নাঈম অভিনয় করেছেন। ‘হাসির পাত্র’ ঈদের চতুর্থ দিন রাত ৮টা ৩০ মিনিটে দীপ্ত টিভিতে প্রচারিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *