সমালোচনায় ঝড়ে ক্ষুদে গানরাজের রঙ্গন হৃদ্য

২০০৮ সালে চ্যানেল আই ক্ষুদে গানরাজে অংশ নিয়ে সবার নজরে আসেন রঙ্গন হৃদ্য। তখন তার বয়স ছিল মাত্র পাঁচ বছর। তারপর বেশ কয়েক বছর বিরতির পর হঠাৎ করে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ভাইরাল রঙ্গন হৃদ্য। যদিও এই সময়ের মধ্যে কিছু টিভি অনুষ্ঠানের পাশাপাশি বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলের স্টেজে লাইভ পারফর্মেন্স করে আসছিলেন। ২০১০ সালে কাতারে একটি অনুষ্ঠানেও অংশ নিয়েছিলেন তিনি।

সম্প্রতি কাভার গান করে আলোচনায় আসেন রঙ্গন হৃদ্য। প্রশংসিত হন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এরই ধারাবাহিকতায় কুমার বিশ্বজিতের একটি গানের মডেলও হন এই সুশ্রী কিশোরী। কিন্তু সমালোচকরা তো বসে থাকবে ভুল ধরার জন্য। এবার সেটাই হলো।

সম্প্রতি কণ্ঠশিল্পী তাহসানের একটি গান কাভার করেন। আর এই গানটিকে ইতিবাচকভাবে নিতে পারেনি নেটিজেনদের একাংশ। রীতিমতো ট্রল হয়ে যায় হৃদ্যকে নিয়ে। শুধু তাই নয় ট্রোলড পোস্ট গুলোর মন্তব্যে বাক্সে রীতিমতো সমালোচনার ঝড় ওঠে।নেটিজেনদের অভিযোগ গানগুলো রঙ্গন নিজের মতো করে গাইতে গিয়ে নষ্ট করে ফেলছেন, যার কারণে পূর্বের শ্রোতারা কাভার গান ইতিবাচকভাবে নিতে পারছেন না।

যদি সোশ্যাল মিডিয়ার বড় অংশের দাবি রঙ্গন অনেক সম্ভাবনাময়ী। কেবল নবম শ্রেণীতে পড়ছেন। সামনে অপার সম্ভাবনা রয়েছে।

ইতোমধ্যে রঙ্গন বিজ্ঞাপনের পাশাপাশি একটি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন। ‘মেঘ কন্যা’ নামের এই চলচ্চিত্রে ফেরদৌস ও নিঝুম রুবিনা রঙ্গনের বাবা-মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *