মজার কিছু পিঠা তৈরির সহজ রেসিপি

বাঙালির ঐতিহ্যবাহী খাবার পিঠা। শতাব্দী পর শতাব্দী ধরে বাঙালির খাবারের একটি বড় অংশ জুড়ে রয়েছে পিঠা। তবে আজকাল ব্যস্ততার জন্য নগরবাসী মানুষ পিঠার স্বাদ একেবারে ভুলতেই বসেছে। তাই ছুটির দিনে, কম সময়ে খুব সহজ উপায়ে পিঠা বানানোর জন্য কিছু রেসিপি শেয়ার করছি আপনাদের সাথে।

খুব সহজেই পিঠা বানানোর দ্বিতীয় পর্বে আপনাদের জন্য রয়েছে সুজির রসালো নকশি পিঠা, মাছ পিঠা ও ডিমের পানতোয়া পিঠা বানানোর রেসিপি। তো চলুন, জেনে নেওয়া যাক রেসিপিগুলো।

সুজির রসালো নকশি পিঠা

সুজির রসালো পিঠা:

এই পিঠাটি খুবই কম সময়ে অল্প কিছু উপকরণ দিয়ে তৈরি করা যায়। খেতেও ভারি সুস্বাদু পিঠাটি। তাছাড়া সুজি দিয়ে বানানো হয় এবং খেতে মিষ্টি স্বাদের বলে এই পিঠাটি বাচ্চারাও আগ্রহ নিয়ে খেয়ে থাকে।

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

১ কাপ সুজি
২ কাপ দুধ
১টি ডিম
৩ চা চামচ ময়দা
সিরার জন্য
২ কাপ চিনি
৪ কাপ পানি
২ কাপ তেল
২টি এলাচ
১ টুকরো দারুচিনি

প্রস্তুত প্রণালী:
প্রথমে একটি প্যানে দুধ নিয়ে মাঝারি আঁচে তাপ দিতে থাকুন। দুধ ফুটতে শুরু করলে তার মধ্যে সুজি দিয়ে কিছুক্ষণ সেদ্ধ করুন। এর মধ্যে অল্প অল্প ময়দা দিয়ে আরও কিছুক্ষণ সেদ্ধ করুন।

সেদ্ধ হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা হতে দিন। ঠাণ্ডা হয়ে গেলে ভালো করে ময়ান করুন যেন একটি মসৃণ খামির তৈরি হয়। এবার এর সাথে ডিমটা ভালোভাবে মাখিয়ে নিন। আপনি চাইলে হাতে সামান্য পরিমাণে তেল বা ঘি লাগিয়ে নিতে পারেন। তাহলে আর হাতে লাগবে না।

সুজির নকশি পিঠা:

খামির পুরোপুরি তৈরি হয়ে গেলে পিঠা তৈরির ডাইস নিয়ে এতে তেল মাখিয়ে পিঠা তৈরি করে নিন। ডাইস না থাকলে হাত দিয়েই পছন্দমতো সাইজে পিঠা তৈরি করে নিন।

এবার একটি পাত্রে তেল গরম হতে দিন। তেল গরম হয়ে গেলে মৃদু আঁচে ডুবো তেলে তৈরি করে রাখা পিঠাগুলো ভেজে নিন। আরেকটি পাত্রে পানি, চিনি, এলাচ ও দারুচিনি নিয়ে পাতলা সিরা তৈরি করুন।

সুজির রসালো নকশি পিঠা:

পিঠাগুলো ভাজা হয়ে তেল থেকে উঠিয়ে সাথে সাথেই চিনির সিরায় দিয়ে ভিজিয়ে রাখুন। প্রায় ৫-৬ ঘণ্টা পর চিনির সিরা থেকে উঠিয়ে নরম ও তুলতুলে রসালো সুজির পিঠাগুলো পরিবেশন করুন।

মাছ পিঠা

মাছ পিঠা:

প্রয়োজনীয় উপকরণ
খামির তৈরির জন্য
১ কাপ ময়দা
২ টেবিল চামচ তেল
১ চা চামচ চিনি
লবণ পরিমাণমতো
গরম পানি পরিমাণমতো
পুরের জন্য
১ কাপ চিকেন কিমা (চিকেন কিমা না থাকলে আপনি ছোট ছোট টুকরো করে মুরগির বুকের মাংস ও নিতে পারেন)
১/২ কাপ মটরশুঁটি
১/২ কাপ পেঁয়াজ (কুচি করে কাটা)
২ টি কাঁচা মরিচ কুচি
ধনে পাতা কুচি
২ টেবিল চামচ তেল
১ চা চামচ সয়া সস
১/২ চা চামচ জিরা গুঁড়ো
১/২ চা চামচ আদা বাটা
১/২ চা চামচ রসুন বাটা
তেল ভাজার জন্য
প্রস্তুত প্রণালী
প্রথমেই খামির তৈরির উপকরণগুলো এক সাথে মিশিয়ে মোটামুটি নরম একটি মসৃণ খামির তৈরি করে নিন। খামিরটি একটি ভেজা সুতি কাপড় বা প্লাস্টিক পেপার দিয়ে কমপক্ষে ৩০ মিনিট ঢেকে রাখুন।

মুচমুচে মাছ পিঠা:

একটি প্যানে তেল গরম করে প্রথমে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভাজতে থাকুন। পেয়াজ নরম হয়ে এলে আদা -রসুন বাটা দিয়ে নাড়তে থাকুন। এবার একে একে চিকেন কিমা বা মুরগির বুকের মাংসের টুকরোগুলো, সয়া সস, জিরা গুঁড়ো, লবণ, মটরশুটি ও কাঁচা মরিচ দিয়ে সব উপকরণগুলো সেদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত আস্তে আস্তে নাড়তে থাকুন।

সবশেষে ধনেপাতা কুচি দিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন। এবার তৈরি করা রাখা খামিরটি নিয়ে সামান্য তেল দিয়ে আরেকবার মেখে নিন। পুরো খামিরটিকে ৩/৪ ভাগে ভাগ করে রুটি বেলে নিন।

রুটিগুলোর ভেতর চিকেনের পুর দিয়ে মাছের মতো আকৃতি করে মুড়ে নিন। এভাবে সবগুলো পিঠা তৈরি করে প্লেটে তুলে রাখুন।

মাছ পিঠা:

একটি ননস্টিক প্যানে তেল গরম হতে দিন। তেল গরম হয়ে গেলে মাঝারি আঁচে মাছ পিঠাগুলো ডুবোতেলে সোনালী বাদামী রং করে ভেজে নিন। টমেটো সস বা চিলি সস এবং সালাদের সাথে পরিবেশন করুন গরম গরম মজাদার মাছ পিঠাগুলো।

ডিমের পানতোয়া পিঠা

ডিমের পানতোয়া পিঠা:

এই পিঠাটি হাতের কাছেই আছে এমন সব উপকরণ দিয়ে খুবই কম সময়ে এবং খুব সহজে তৈরি করা যায়। আবার খেতেও খুব সুস্বাদু। চলুন রেসিপিটি জেনে নেওয়া যাক।

প্রয়োজনীয় উপকরণ:
১টি ডিম
৩ টেবিল চামচ চিনি
১ চা চামচ বেকিং পাউডার
১/২ কাপ চাউলের গুঁড়ো
লবণ পরিমাণমতো
তেল ভাজার জন্য
প্রস্তুত প্রণালী
প্রথমে চাউলের গুঁড়ো এবং বেকিং পাউডার একসাথে মিশিয়ে চালুনি দিয়ে চেলে নিন। এবার একটি বাটিতে ডিম ফেঁটিয়ে নিন। ফেটানো ডিমে চিনি ও লবণ দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন যেন চিনি পুরোপুরি গলে যায়।

পানতোয়া পিঠা:

এবার এই মিশ্রণে চাউলের গুঁড়ো ও বেকিং পাউডার অল্প অল্প করে মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। একটি ননস্টিক প্যানে তেল গরম করে এতে গোল করে এক টেবিল চামচ মিশ্রণ দিন। পিঠার মতো করে ডুবো তেলে ভেজে নিন।

পিঠাটি বাদামী রং হয়ে এলে তেল থেকে তুলে নিয়ে আবার ডিমের মিশ্রণটিতে চুবিয়ে ডুবো তেলে ছেড়ে দিন। বাদামী রং ধারণ করলে একইভাবে গোল পিঠাটি উঠিয়ে মিশ্রণে চুবিয়ে ডুবো তেলে ছেড়ে বাদামী করে ভেজে নিন।

ডিমের পানতোয়া পিঠা:

এই প্রক্রিয়ায় যতক্ষণ না ডিমের মিশ্রণটি শেষ হবে ততক্ষণ পিঠাটি ভাজতে থাকুন। শেষবার ভেজে তুললে দেখবেন পিঠাটি বড় আকারের একটা গোলার মত দেখতে হবে।

এবার গরম গরম পিঠাটি ছুরি দিয়ে একটু তেরছাভাবে কেটে নিন। পিঠাগুলো গরম গরম পরিবেশন করতে হবে। কারণ, ঘণ্টাখানেক পর পিঠাগুলো কিছুটা শক্ত হয়ে যাবে।

ডিমের পানতোয়া পিঠা আপনি চাইলে মিষ্টি স্বাদের পরিবর্তে ঝালও বানাতে পারেন। সেক্ষেত্রে পিঠা তৈরির উপকরণে চিনির পরিবর্তে কাঁচামরিচ ও ধনেপাতা ব্যবহার করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *