পহেলা ফাল্গুনের আয়োজনের জন্য ভেটকি মাছের দুটো রেসিপি

শীতের আর কেবল ক’টা দিন বাকি। এরপরেই প্রকৃতি রাঙিয়ে দিয়ে আগমন ঘটবে ঋতুরাজ বসন্তের। বসন্তের প্রকৃতির মতোই, সকলের মনও সেজে ওঠে নানা রঙে। পহেলা ফাল্গুন নানান আয়োজন এবং অনুষ্ঠানে মেতে ওঠে বাঙালিরা। সাথে একে অন্যের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়া তো আছেই।

পহেলা ফাল্গুনে বাড়িতে বেড়াতে আসা মেহমানদের জন্য বাঙালি রান্নাই আমরা করে থাকি। সেদিনের মাছের পদের আয়োজনের জন্য ভেটকি মাছের কোপ্তা এবং ভেটকি মাছের পাতুরির রেসিপি নিম্নে বর্ণনা করছি।

১. ভেটকি মাছের কোপ্তা
ভেটকি হলো সামুদ্রিক মাছ। সামুদ্রিক মাছ খুব সুস্বাদু হয়। ভেটকি মাছের কোপ্তা তাই ফাল্গুনের খাওয়া-দাওয়ায় বেশ আরাম যোগাবে। ভেটকি মাছের কোপ্তা শুধু খেতে মজাদার তাই নয়, চমৎকার ঘ্রাণও হয় এর। রেসিপিটি তৈরি করাও বেশ সহজ। চলুন তাহলে জেনে নিই, কীভাবে তৈরি করবেন ভেটকি মাছের কোপ্তা।

ভেটকি মাছের কোপ্তা:

প্রয়োজনীয় উপকরণ:
কোপ্তার জন্য
৫টি ভেটকি মাছের বড় আকৃতির টুকরো
১ টেবিল চামচ কাঁচা মরিচ বাটা
১/২ টেবিল চামচ রসুন বাটা
১ টেবিল চামচ আদা বাটা
১/২ টেবিল চামচ গরম মশলা
১/২ টেবিল চামচ জিরা গুঁড়ো
৩ টেবিল চামচ কর্নফ্লাওয়ার
১টি ডিম
লবণ (পরিমাণমতো)

ঝোলের জন্য
১ কাপ টক দই
১ টেবিল চামচ বাদাম বাটা
১ টেবিল চামচ কিশমিশ বাটা
১ টেবিল চামচ আদা বাটা
১ টেবিল চামচ রসুন বাটা
২ টেবিল চামচ পেঁয়াজ বাটা
১ টেবিল চামচ পোস্তদানা বাটা
১ টেবিল চামচ হলুদ গুঁড়ো
১ টেবিল চামচ মরিচ গুঁড়ো
১/২ টেবিল চামচ জিরা গুঁড়ো
২ টেবিল চামচ পেঁয়াজ বেরেস্তা
১/২ টেবিল চামচ চিনি
১ টেবিল চামচ সয়াবিন তেল
৩-৪টি কাঁচা মরিচ
২টি তেজপাতা
লবণ পরিমাণমতো

প্রস্তুত প্রণালী

ভেটকি মাছ:

১. প্রথমেই ভেটকি মাছের টুকরোগুলো বেছে কাঁটা সরিয়ে নিন। তারপর মাছ বেটে নিন। অথবা খুবই অল্প পানি দিয়ে ব্লেন্ডারেও ব্লেড করতে পারেন। তবে ব্লেন্ডারের ক্ষেত্রে খেয়াল রাখবেন, পানি যেন খুবই কম ব্যবহার করা হয়।

২. এবার ১টি বড় পাত্র নিয়ে তাতে বাটা ভেটকি মাছ এবং উপরোক্ত প্রয়োজনীয় উপকরণে বর্ণিত কোপ্তার জন্য যে উপকরণগুলো প্রয়োজন সবই নিয়ে নিন। সব উপকরণ একসাথে ভালোভাবে মেখে নিন। মাখা হয়ে গেলে ২ হাতের সাহায্যে ১২-১৪টি বল বানিয়ে নিন।

তেলে কোপ্তা ভাজা:

৩. বল বানানো হয়ে গেলে এগুলো কর্ণফ্লাওয়ারে গড়িয়ে ডুবো তেলে ভেজে নিন। বলগুলোর রঙ ঈষৎ বাদামি হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। ভাজা হয়ে গেলে নামিয়ে কিচেন টিস্যুতে মুড়িয়ে রাখুন।

৪. এবার ১টি পাত্রে প্রথমে সয়াবিন তেল দিয়ে গরম করে নিন। তেল গরম হয়ে গেলে এতে উপরোক্ত ঝোলের জন্য প্রয়োজনীয় সব উপকরণ একে একে দিয়ে কষিয়ে নিন। কষানো হয়ে গেলে এতে ৩নং ধাপে তৈরি করে রাখা ভেটকি মাছের কোপ্তাগুলো দিয়ে দিন।

কোপ্তার ঝোল তৈরি করা:

৫. কোপ্তাগুলো দিয়ে আরো ২-৩ মিনিট কষিয়ে এরপর এতে দই দিয়ে ঢেকে দিন। এরপর কাঁচা মরিচ ও পেঁয়াজ বেরেস্তা দিন। এসময় চুলার আঁচ একবারেই কমিয়ে দেবেন। আরো ৪-৫ মিনিট পর চুলা থেকে নামিয়ে নিন। তৈরি হয়ে গেলো মজাদার ভেটকি মাছের কোপ্তা। পহেলা ফাল্গুনে খাবার টেবিলে পরিবেশন করার জন্য মজাদার ১টি রেসিপি।

২. ভেটকি মাছের পাতুরি
পাতুরি হলো কলাপাতায় মুড়িয়ে ভাপে মাছ রান্না করার ১টি পদ্ধতি। পাতুরি আমাদের দেশে মাছ রান্নার খুব জনপ্রিয় পদ্ধতি। আজ থাকছে পহেলা ফাল্গুন উপলক্ষ্যে রান্নার জন্য ভেটকি মাছের পাতুরির রেসিপি।

ভেটকি মাছের পাতুরি; Source: TheChefSalma

প্রয়োজনীয় উপকরণ:
২৫০ গ্রাম ভেটকি মাছ
১০০ মিলিলিটার সরিষার তেল
২ টেবিল চামচ মরিচের গুঁড়ো
১ টেবিল চামচ হলুদের গুঁড়ো
২ টেবিল চামচ সরিষা বাটা
১/২ টেবিল চামচ চিনি
৮টি কলাপাতা
লবণ পরিমাণমতো

প্রস্তুত প্রণালী:
১. প্রথমেই মাছের কাঁটা ছড়িয়ে নিন। এরপর ১টি পাত্রে মাছ, মরিচের গুঁড়ো, হলুদের গুঁড়ো এবং সরিষার তেল নিয়ে সব উপাদান একসাথে ভালো করে মিশিয়ে নিন। মাছের এই মিশ্রণটিকে ১/২-২ ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে মেরিনেট করে নিন।

কলাপাতা সেঁকে নেয়া:

২. মেরিনেট করা ভেটকি মাছ ফ্রিজ থেকে বের করে মিনিট দশেক রেখে স্বাভাবিক করে নিন। এরপর এতে চিনি, সরিষা বাটা এবং তেল দিয়ে আবার ভালোভাবে মেখে নিন। এরপর আবার ৩০-৪০ মিনিট ফ্রিজে রেখে মেরিনেট করে নিন।

৩. ১টি বড় পাত্রে পানি গরম করতে দিন।

কলাপাতায় ভেটকি:

৪. পানি গরমে বসিয়ে ৩০-৪০ মিনিট পর মাছ ফ্রিজ থেকে বের করে রাখুন। এদিকে কলাপাতাগুলো ধুয়ে পরিষ্কার করে ৩০ সেকেন্ড চুলায় অল্প আঁচে সেঁকে নিন। লক্ষ্য রাখবেন, কলাপাতা যেন পুড়ে না যায়। এরপর প্রতিটি কলাপাতার মাঝে ভেটকি মাছের মেরিনেট করা মিশ্রণ দিয়ে দিন। মাছ দেয়া হলে গেলে কলাপাতা মুড়িয়ে সুতা দিয়ে পেঁচিয়ে নিন। কলাপাতার ২ পাশ ভাজ করে টুথপিক দিয়ে আটকিয়ে দিন।

৫. এবার ৩ নং ধাপে করে রাখা গরম পানির পাত্রের ওপর লোহার ছাঁকনি দিয়ে তাতে ৪ নং ধাপে বেঁধে রাখা কলাপাতাগুলো দিয়ে দিন। এরপর ১টি ছিদ্রযুক্ত ঢাকনা দিয়ে কলাপাতাগুলো ঢেকে দিন। এভাবে ২০-৩০ মিনিট ভাঁপে রান্না করুন।

কলাপাতা বাঁধা:

৬. মাছ ভালোভাবে সেদ্ধ হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। নামানোর পর ১টি ধারালো ছুরি দিয়ে কলাপাতার সুতাগুলো কেটে গলাপাতা ছাড়িয়ে নিন। মাছগুলো সুন্দর ১টি প্লেটে সাজিয়ে রাখুন। ভেটকি মাছের সুস্বাদু পাতুরি রান্না করা শেষ।

ভেটকি মাছের পাতুরি থেকে আসা ঘ্রাণেই সবাইকে জানিয়ে দেবে রান্না হয়ে গেছে। গরম গরম পরিবেশন করুন। পাতুরির সাথে খাওয়ার জন্য কিছুই প্রয়োজন হয় না, তবে ইচ্ছে করলে গরম ভাতের সাথে খেতে পারবেন। দেখবেন ভেটকি মাছের সাথে পাতুরির সাথে ফাল্গুন বেশ জমে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *