জেনে নিন সুস্বাদু চাইনিজ চিকেন ফ্রায়েড রাইস তৈরির রেসিপি

চাইনিজ খাবারের কদর পৃথিবীর প্রায় সর্বত্র জুড়েই রয়েছে। চাইনিজ চিকেন ফ্রায়েড রাইস বিদেশি খাবার হলেও এর চাহিদা অনেক বেশি। একই ধরনের খাবার সবসময় ভালো লাগে না, তাই মাঝে মধ্যে একটু ভিন্ন খাবার খেতে ইচ্ছে হয়। কিন্তু সময়ের অভাবে অনেক রেসিপি তৈরি করা সম্ভব হয় না। তবে চাইনিজ চিকেন ফ্রায়েড রাইস খুবই সহজ একটি রেসিপি।

চিকেন ফ্রায়েড রাইস:
এটি তৈরি করতে খুব বেশি একটা সময় লাগে না। আর সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে, ছোট থেকে বড় সবাই ফ্রায়েড রাইস খেতে বেশ পছন্দ করেন। তাই আপনি চাইলেই রেস্টুরেন্টের স্বাদে ঘরেই তৈরি করে নিতে পারেন মজাদার এবং সুস্বাদু চাইনিজ চিকেন ফ্রায়েড রাইস।

উপকরণ:
পোলাও চাল ১ কেজি
সবজি পরিমাণমতো (গাজর, বাঁধাকপি, ক্যাপসিকাম, বরবটি)
কাঁচা মরিচ ৭টি
রসুন কুচি ১ টেবিল চামচ
হাড় ছাড়া মুরগির মাংস আধা কাপ
কর্ন ফ্লাওয়ার ১ চা চামচ
গোল মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ
ঘি ১০০ গ্রাম
ডিম ২টি
ফিশ সস ১ টেবিল চামচ
টমেটো সস ১ চা চামচ
সয়া সস ১ টেবিল চামচ
চিনি ১ চা চামচ
লবণ পরিমাণমতো
প্রস্তুত প্রণালী
প্রথমেই একটি পাতিলে পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি ফুটিয়ে নিতে হবে। পানি ফুটে উঠলে ১ চা চামচ পরিমাণ লবণ ও আধা চা চামচের মতো তেল মিশিয়ে নিতে হবে। পানিতে লবণের সাথে তেল দেওয়ার কারণে ভাতটা ঝরঝরে হবে ও একটির সাথে অন্যটি লেগে যাবে না।

এবার ১ কেজি পরিমাণ পোলাও চাল ভালো করে ধুয়ে পাতিলে ঢেলে দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে। তবে পুরোপুরি সেদ্ধ করা যাবে না, একটু শক্ত রাখতে হবে। আর ভাতটা হওয়ার সময় বার বার নেড়ে নেওয়া যাবে না, এতে ভাতের চালটা ভেঙ্গে যেতে পারে।

ভাত রান্না:
আপনারা চাইলেই এখানে পোলাওয়ের চাল ছাড়া অন্য যেকোনো চাল ব্যাবহার করতে পারেন। ভাতটা হয়েছে কিনা বোঝার জন্য একটি ভাত হাতে নিয়ে টিপ দিয়ে দেখে নিতে হবে। ভাত হয়ে গেলে নামিয়ে নিয়ে পানিটা ঝরিয়ে নিতে হবে। পানি ঝরানো হয়ে গেলে ভাতগুলো একটি বড় থালায় নামিয়ে নিয়ে ছড়িয়ে রাখতে হবে। এমনভাবে রাখতে হবে যেন ভাত নরম না হয়ে যায়। এরপর ঠাণ্ডা হয়ে গেলে ভাতগুলোকে ফ্রিজে রেখে দিতে হবে ৫-৬ ঘণ্টার মতো।

পোলাও চালের ভাত:
এবার সবজিগুলোকে ভালো করে ধুয়ে নিয়ে কুচি করে কেটে নিতে হবে। তবে ফ্রায়েড রাইস করার জন্য সবজিগুলোকে ছোট এবং পাতলা করে কেটে নিতে হবে। গাজর ও বাঁধাকপি একটু ঝুরি ঝুরি করে কেটে নিতে হবে।

আর ক্যাপসিকামগুলোকে চিকন ও পাতলা করে কেটে নিতে হবে। বরবটিগুলো ছোট ছোট করে কুচি করে কাটতে হবে। একটু খেয়াল রাখতে হবে, ভাতের চেয়ে যেন সবজির পরিমাণ কম না হয়ে যায়। কম হলে ফ্রায়েড রাইসটা খেতে আর ভালো লাগবে না।

ভেজিটেবল:
সবজি কাটা হয়ে গেলে ৭টি কাঁচা মরিচ একটু মাঝারি সাইজ করে কেটে নিতে হবে। সাথে আরও কেটে নিতে হবে হাড় ছাড়া মুরগির বুকের মাংস। তবে মাংসটাকে ছোট ও পাতলা করে কেটে নিতে হবে। এবার মাংসগুলোকে একটি বাটিতে নিয়ে ১ চা চামচ সয়া সস, কর্ন ফ্লাওয়ার ১ চা চামচ ও গোল মরিচ আধা চা চামচ দিয়ে হাত দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে। মেশানো হয়ে গেলে একটি প্যানে ১০০ গ্রাম ঘি দিয়ে গলিয়ে নিতে হবে।

অন্যান্য উপাদান:
ঘি ভালোভাবে গলে যাওয়ার পর এতে ১ চা চামচ রসুন কুচি দিয়ে ভালো করে নেড়ে নিতে হবে। রসুন কুচিগুলো যখন একটু লালচে হয়ে যাবে তখন এতে দিয়ে দিতে হবে মাখিয়ে রাখা মাংসটুকু। যেহেতু চাইনিজ খাবারগুলো সম্পূর্ণ আঁচে রান্না করা হয়, তাই চুলা সম্পূর্ণ আঁচে রেখে মাংসগুলোকে ভালো করে রান্না করতে হবে। মাংসগুলোতে যখন একটু লালচেভাব চলে আসবে তখন মাংসগুলোকে একপাশে রেখে অন্যপাশে ২টি ডিম ভেঙ্গে দিয়ে দিতে হবে।

সকল উপাদান একত্রে মেশানো হচ্ছে:
ডিমের সাথে আধা চা চামচ গোল মরিচও দিয়ে দিতে হবে। এবার ডিমটাকে নেড়ে নেড়ে ঝুরি করে ফেলতে হবে। তারপর মাংস ও ডিমটাকে একসাথে মিশিয়ে নেড়ে নিতে হবে। এভাবে মাংস ও ডিম একসাথে মেশানোর কারণে ডিম থেকে মাংসের একটা সুঘ্রাণ বের হবে, আর এটা খেতেও বেশ ভালো লাগবে।

এখন একের পর এক সবজিগুলো দিয়ে দিতে হবে। প্রথমে শক্ত সবজিগুলো সবার আগে দিয়ে দিতে হবে। কারণ এগুলো সেদ্ধ হতে বেশি সময় লাগবে, তাই প্রথমে বরবটি দিয়ে কিছুক্ষণ নেড়ে সাথে গাজরগুলো দিয়ে আবারও একই পদ্ধতিতে নেড়ে নিতে হবে।

চিকেন ফ্রায়েড রাইস রান্না:
ভালো করে নেড়ে মিশিয়ে নিয়ে দিয়ে দিতে হবে কাঁচা মরিচগুলো। তারপর আবারও ভালো করে নেড়ে নিতে হবে। সবজিগুলোকে খুব বেশি একটা সেদ্ধ করা যাবে না তাহলে খেতে খুব বেশি একটা ভালো লাগবে না। শুধু সবজিগুলোকে ভালো করে ভেজে নিতে হবে।

এই সবজিগুলো ভালোভাবে হয়ে গেলে এতে বাঁধাকপিগুলো দিয়ে ভালো করে নেড়ে নিতে হবে। সবজিগুলোকে ভালোভাবে মেশানো হয়ে গেলে ফ্রিজ থেকে ভাতগুলো বের করে সাথে সাথে দিয়ে দিতে হবে।

তৈরি চিকেন ফ্রায়েড রাইস:
এতে করে ফ্রায়েড রাইসটা শুকনো ও ঝরঝরে হবে এবং খতে বেশ ভালো লাগবে। এবার ভাত এবং সবজিগুলো ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। মেশানো হয়ে গেলে এতে সয়া সস দিয়ে দিতে হবে ১ টেবিল চামচ, ফিশ সস ২ টেবিল চামচ, ১ চা চামচ পরিমাণ চিনি ও সামান্য গোল মরিচের গুঁড়া। এবার ভালো করে নেড়ে নিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে। যখন বোঝা যাবে হয়ে গেছে, তখন উঠিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার চাইনিজ চিকেন ফ্রায়েড রাইস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *