চতুর্থ শ্রেণির কর্মকর্তার বিপুল সম্পদসহ বিদেশে বাড়ি

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মেডিকেল এডুকেশন শাখার হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা মো. আবজাল হোসেনের বিপুল সম্পদের তথ্য পেয়ে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দেশে বিপুল সম্পদসহ বিদেশে বাড়ি বিষয়ে জানতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুদক। দুদক সূত্র এসব তথ্য জানা গেছে।

দুদক সূত্রে জানা যায়, আবজাল দম্পতির নামে রাজধানীর উত্তরায় ১৩ নম্বর সেক্টরের ১১ নম্বর রোডে তিনটি পাঁচতলা বাড়ি রয়েছে। এছাড়া ১৬ নম্বর রোডে পাঁচতলা বাড়ি, উত্তরার ১১ নম্বর রোডে একটি প্লট (প্লট নম্বর ৪৯) এবং ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় ও ফরিদপুরের তাদের তাদের প্রচুর সম্পদ রয়েছে। দেশের বাইরে অস্ট্রেলিয়াতেও বাড়ি আছে আবজাল দম্পতির। দুদক সেই বাড়ির সন্ধান পেয়েছে।

সূত্রে আরও জানা যায়, এতো সম্পদের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবজাল হোসেনকে গত সপ্তাহে নোটিশ দেয় দুদক। দুদকে আসার সময় জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্টের ফটোকপি, নিজ ও পরিবারের সদস্যদের নামে অর্জিত স্থাবর, অস্থাবর সম্পদের বিবরণ ও আয়কর রিটার্নের ফটোকপি সঙ্গে নিতে বলা হয়েছে। সেই অনুযায়ী আজ (বৃহস্পতিবার) সকাল থেকে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এছাড়া সিন্ডিকেট করে সীমাহীন দুর্নীতির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবজাল হোসেনসহ স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালকসহ চার কর্মকর্তাকে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

যাদের তলব করা হয়েছে- স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (হাসপাতাল, ক্লিনিক ও লাইন ডিরেক্টর) ডা. কাজী জাহাঙ্গীর হোসেন, পরিচালক (লাইন ডিরেক্টর ও চিকিৎসা এবং স্বাস্থ্য জনশক্তি উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. আবদুর রশিদ, সহকারী পরিচালক (বাজেট) ড. মো. আনিসুর রহমান ও মেডিকেল এডুকেশন শাখার হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মো. আবজাল হোসেন।

এদের মধ্যে প্রথম তিনজনকে ১৪ জানুয়ারি এবং মো. আবজাল হোসেনকে আজ (বৃহস্পতিবার) দুদকে হাজির হতে নোটিশ করা হয়। এদিন আবজালের সঙ্গে তার স্ত্রী স্বাস্থ্য অধিদফতরের শিক্ষা ও স্বাস্থ্য জনশক্তি উন্নয়ন শাখার স্টেনোগ্রাফার রুবিনা খানমকে দুদকে একই দিন হাজির হতে বলা হয়। দুদক তার বিরুদ্ধেও অনুসন্ধান করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *