এবার হাঁটতে পারবে হুন্দাইয়ের নতুন গাড়ি (ভিডিও)

ভূমিকম্প বা কোন ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগে রাস্তাঘাট ভেঙে গেছে কিংবা রাস্তার ওপর পড়ে আছে ধ্বংসস্তুপ। সাধারণ উদ্ধারকারী যানবাহন নিয়ে চলা সম্ভব নয়। এমন পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে দক্ষিণ কোরিয়ার গাড়ি প্রস্তুতকারী কোম্পানি হুন্দাই মোটরস বাজারে আনতে যাচ্ছে এমন এক গাড়ি যা প্রয়োজনে ‘হাঁটতেও পারবে’। রাস্তা ভাঙ্গা কিংবা এবরোথেবড়ো বলে গাড়িটি তার রোবটিক পা দিয়ে হেঁটে চলে যাবে সেসবের ওপর দিয়ে।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসে অনুষ্ঠিত সিইএস প্রযুক্তি মেলায় এমন একটি গাড়ির মডেল প্রদর্শন করেছে হুন্দাই কোম্পানি। মডেলটি খুবই জনপ্রিয়তা পেয়েছে মেলায় প্রদর্শনের পরই।

ছোট গাড়িটির চারটি চাকা থাকবে চারটি রোবটিক পায়ের সাথে। স্বাভাবিক রাস্তায় পাগুলো ভাজ করে সাধারণ গাড়ির মতো চলবে চাকার ওপর। কিন্তু প্রয়োজনে পা খুলে হাঁটার মতো করে পথ চলবে সেটি। হুন্দাই কোম্পানি জানিয়েছেন বন্ধুর পথে প্রতি ঘণ্টায় ৫ কিলোমিটার গতিতে হাঁটতে পারবে গাড়িটি।

এছাড়া সেটি ৫ ফুট উচ্চতার দেয়াল টপকাতে পারবে, এক লাফিয়ে যেতে পারবে পাঁচ ফুট দূরত্বে। প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা বলছেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগে উদ্ধার কাজের জন্যই মূলত এটি প্রস্তুত করা হবে।

গত তিন বছর ধরে গাড়ির এই মডেলটি নিয়ে কাজ করছে হুন্দাইয়ের ইঞ্জিনিয়াররা। এবারের লাস ভেগাস প্রযুক্তি মেলায় সেটি প্রথমবারে মতো দেখানো হলো। প্রতিষ্ঠানটির ভাইস প্রেসিডেন্ট জন সুহ বলেন, যদি সুনামি কিংবা ভুমিকম্পে এমন পরিস্থিতি হয় যেখানে সাধারণ উদ্ধারকারী যান তৎপরতা চালাতে পারছে না, পায়ে হাঁটা ছাড়া অন্য কোন পথ নেই যাওয়ার। সেখানে কাজ করতে পারবে আমাদের এই যানটি, পায়ে ভর দিয়ে সেটি অতিক্রম করতে পারবে ধ্বংস স্তুপ।

তিনি বলেন, কিংবা ধরুন কোন বাড়ির দরজা পর্যন্ত গাড়ি যেতে পারছে না সেখানে উদ্ধার কাজের জন্য ছুটে যেতে পারবে এই যানটি।

যুক্তরাষ্ট্রের অস্টন বিজনেস স্কুলের প্রফেসর ডেভিড বেইলি বলেন, অনেক সময় গাড়ি কোম্পানিগুলো অনেক পরিকল্পনা দেখায় যেগুলো সব সময় বাস্তবে তৈরি করা সম্ভব নয়, তথাপি এই আইডিয়াটি চমৎকার। আমরা রাস্তা ও চাকার ওপর নির্ভর করে বহুদূর যাই; কিন্তু যেখানে চাকা চলতে পারবে না সেখানে কী হবে? সেই সব পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে এটি করা হয়েছে। যদিও এই গাড়ি বাস্তবে তৈরি করা অনেক বড় প্রযুক্তিগত একটি চ্যালেঞ্জ।

ভিডিও এখানে দেখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *